আসসালামু আলাইকুম, আরও একটা নতুন স্মার্টফোন রিভিউ দিয়ে হাজির হয়ে গেলাম আপনাদের সবার প্রিয় টেক ওয়েবসাইট ‘টেক জার্নাল বিডি’ থেকে।

আজ আমরা রিভিউ করবো ‘Techno Spark 4 lite’ কে নিয়ে। তো দেখা যাক, লাইট কথাটা আছে দেখে এটা কি কোনো নর্মাল ফোন নাকি ছোট মরিচে বড় ধামাকার একটি ফোন। বিস্তারিত কথা বলবো ‘টেক জার্নাল বিডি’ থেকে আমি আয়ান আহরান শ্রাবণ। পুরোটা পড়ুনঃ

আনবক্সিং : Techno Spark 4 lite | টেক জার্নাল বিডি

টেক জার্নাল বিডি
‘Tecno Spark 4 lite’

বক্স খুললেই প্রথমে পেয়ে যাবেন একটি সুদর্শনীয় ‘Tecno Spark 4 lite’ । সাথে থাকছে power adapter, micro USB Cable, Earphone, একটি Plastic case আর কিছু বেহুদা কাগজপত্র।

টেক জার্নাল বিডি
‘Tecno Spark 4 lite’ plastic case

বক্সে দেয়া প্লাস্টিক কেসটির ডিজাইন ছিলো সুন্দর এবং পুরাই জোশ। 

ডিজাইন:

ডিজাইন বাজেট হিসেবে বেশ ভালোই বলা যায়। সম্পূর্ণ প্লাস্টিক বিল্ড ডিভাইসটি। বিল্ড কোয়ালিটি বেশ ভালোই মনে হয়েছে। শক্তপোক্ত ও সলিড মনে হয়েছে হাতে নিয়ে। 

সামনে রয়েছে ভালো পরিমাণের ব্যাজেল যুক্ত ৬.৫২” এর HD+ ডট। notch ডিসপ্লে। নচের ভিতরে রয়েছে ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ঠিক তার উপরে রয়েছে ইয়ারপিস। এবং তার পাশে রয়েছে চার্জিং লাইট যা শুধু চার্জিং এর সময়ই জ্বলে। এক কথায় যাকে বলে নোটিফিকেশন লাইট। পাশাপাশি ফ্রন্ট ক্যামেরা ফ্লাশ হিসেবেও কাজ করে। 

পিছনের ঠিক বাম সাইডে আছে রিয়ার ক্যামেরা, ফ্লাশ লাইট। ক্যামেরার ঠিক নিচে রয়েছে টেকনোর লগো যার ঠিক নিচে অবস্থান করছে ব্যাকসাইড স্পীকার। 

ফিঙ্গার প্রিন্ট স্ক্যানার রয়েছে পিছন সাইডের ঠিক আপার মিডলে। তবে ফিঙ্গারপ্রিন্ট পজিশন টা আর একটু ভালো হতে পারতো।  
ডান পাশে রয়েছে ভলিউম বাটন, লকার বাটন। বাটন গুলো প্রেস করে বেশ ভালো একটা ক্লিকি ফীল পাচ্ছিলাম এবং নিচে রয়েছে চার্জিং পোর্ট এবং ৩.৫ mm ইয়ারফোন জ্যাক। 

কালার:

দুইটা কালারে পাওয়া যাবে এই ফোন। হিলার পার্পেল এবং ভ্যাকেশন ব্লু।  দুইটি কালার ভেরিয়েন্টে ইউজ করা হয়েছে ব্যাক সাইড ফিনিশিং। প্লাস্টিক ব্যাকপার্ট হওয়াই খুব সহজে স্ক্রাচ পরে যেতে পারে। তাই ব্যাক কভার ইউজ করার অনুরোধ থাকলো। 

**ব্যাকপার্ট রিমুভাল, কিন্তু রিমুভাল হলেও ব্যাটারি নন রিমুভাল।

টাচ রেসপন্স বাজেট অনুযায়ী ঠিকঠাক ছিলো। কিন্তু স্ক্রল করার সময় মাঝে মাঝে মোশন ব্লার দেখা যাচ্ছিলো। 
ডিসপ্লেতে ভিউয়িং এঙ্গেল জনিত কোনো সমস্যা চোখে পরে নি আমাদের। এক্সট্রিম পজিশন থেকেও কোনো নেগেটিভিটি লক্ষ করি নি আমরা।

পার্ফর্মেন্স সেক্টর:

Media tech এর helio a22 এর চিপসেট ব্যবহার করা হয়েছে এই ফোনটিতে। Ram Rom অপশন পাবেন একটাই। সেটা হলো ২,৩২। তাছাড়া ডেডিকেটেড মাইক্রো মেমরি স্লট দিয়ে সর্বোচ্চ ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যায়।

হেভি ইউজ ছাড়া ছোটোখাটো সব কাজই ভালোভাবে সামলাতে পেরেছে ‘Techno Spark 4 lite’ 
Pubg প্লেবেল ছিলো না তবে ল্যাগ সহ পাব্জি লাইট খেলা যাচ্ছিলো কোনোমতে।  কল অফ ডিউটি মাল্টিপ্লেয়ারে খেলা গেলেও ব্যাটল ওয়ার মোডে ছিলো অযোগ্য। asplhat 8 সহ অন্যান্য লো মিডয়াম গেম গুলো ভালোই খেলা যাচ্ছিলো ‘Techno Spark 4 lite’ এ। 

**এর ভালো  দিক হচ্ছে মিডিয়া টেকের চিপসেট থাকা সত্তেও কোনো টাচ হিটিং পাচ্ছিলাম না। 
ব্যাটারি

Low power, CPU, gpu এবং 4000 মিলিয়ে ‘Techno Spark 4 lite’ থেকে ৭-৮ ঘন্টা ব্যাকাপ পাচ্ছিলাম। নর্মাল ইউজারদের জন্যে ১-২ দিন অনায়াসে চলে যাবে। কিন্তু এর এডাপ্টার দিয়ে ‘Tecno Spark 4 lite’ ডিভাইস ফুল চার্জ হতে সময় লেগে যাচ্ছিলো পুরো তিন ঘন্টা। যা সত্যিই অনেক সময়। 

সিকিউরিটি:

সিকিউরিটি প্যানেলে রয়েছে ফিঙ্গার প্রিন্ট আনলোক এবং ফেইস আনলক। ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর টি বাশ ফাস্ট ছিলো। তবে আঙ্গুল ঘেমে গেলে মিস ফিল হয় মাঝে মাঝে। আর ফেস আনলক ডিসেন্ট ফার্স্ট এবং একুরেট ছিলো।

ক্যামেরা:

‘Tecno Spark 4 lite’ ডিভাইসটিতে সামনে পিছনে দুটোতেই ব্যাবহার করা হয়েছে  8 MP ক্যামেরা। তবে এই বাজেটে পিছনে ডুয়েল ক্যামেরা দেওয়া উচিত ছিলো।  ক্যামেরা বাজেট হিসেবে ওক্কে ছিলো কালার বেশ ভালো ছিলো কিন্তু ডাইনামিক রেঞ্জ বেশ স্ট্রাগল করেছে ‘Tecno Spark 4 lite’

Low Light এ ছবি গুলো এভারেজ ছিলো। প্রচুর নয়েজ এবং ডার্ক ইমেজ পাচ্ছিলাম। শক্ত হাতে ছবি তুললেও মাঝে মাঝে মোশন ব্লার এর দেখা মিলছিলো। ফ্রন্ট ক্যামেরার ছবি গুলো আউটডোর বা ইনডোরে মোটামুটি বেশ ভালোই ছিলো। কিন্তু লো লাইটে অনেক স্মুথ এবং নয়েজি ছবি আসছিলো। 

**ভলিউম বাটন দুইবার চাপ দিলে সরাসরি ক্যামেরা ওপেন হয়ে যায় যা ফোন আনলক না করেই দ্রুত ছবি তোলার জন্যে বেশ উপযোগী।  টেক জার্নাল বিডি

UI বা ইন্টারফেস হিসেবে রয়েছে টেকনোর নিজস্ব ইউআই। এতে ব্যাবহার করা হয়েছে ‘android 9 pie go’ ভার্সন। গো ভার্সন হয়েও দুই জিবি ram নিয়ে ডিসেন্ট পার্ফর্মেন্স করছে ‘Tecno Spark 4 lite’। গো ভার্সন হওয়ায় গুগলের সব কিছুই গো এ্যাপস দেয়া হয়ছে ডিভাইসটিতে। তবে ইউটিউব এবং ম্যাপস এর মেইন এ্যাপই দেয়া টয়েছে।

price:

সবশেষে ‘Tecno Spark 4 lite’ এ নিয়ে বলতে গেলে ৮-৯ হাজার টাকার মধ্যে ডিসেন্ট ভ্যালু ফর মানি অফার করছে tecno। টেক জার্নাল বিডি

এই ফোনটিতে পাচ্ছি গুভ ব্যাটারি ব্যাকাপ, ভালো ক্যামেরা এবং ওকে লেভেলের পার্ফর্মেন্স। 

নরমাল টু রেগুলার ইউজারদের জন্যে খুব সহজেই সন্তুষ্ট করতে পারবে এই ‘Tecno Spark 4 lite’। যারা ফেসবুক এবং টুকটাক ইউজেসের কারণে ভাল একটা ফোন খুঁজছেন বা আব্বু আম্মুকে গিফট করার জন্যে ফোন খুঝছেন তাদের জন্যে ‘Tecno Spark 4 lite’ হতে পারে একটি ভালো অপশন।

ধন্যবাদ পুরো রিভিউ পরার জন্যে। দেখা হবে Tech Journal BD তে পরের কোনো রিভিউতে। 
আজ আপাতত Tech Journal BD থেকে বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ হাফেজ। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here